মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

বর্তমান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব

তোফায়েল আহমেদ ( মাননীয় বাণিজ্য মন্ত্রী )

পিতা:

মৃত মৌলভী আজাহার আলী

মাতা:

ফাতেমা খানম

ঠিকানা:

গ্রাম-কোড়ালিয়া, ইউনিয়ন-দক্ষিণ দিঘলদী

জন্ম:

২২/১০/১৯৪৩

 

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মৃত্তিকা বিজ্ঞানে এমএসসি পাশ করেন। ১৯৬৬-৬৭ সালে ইকবাল হল ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। ১৯৬৭-৬৯ সাল পর্যন্ত ঢাকসুর ভিপি থাকাকালীন উনসত্তর এর গনঅভ্যুথ্থানের নেতৃত্ব দেন। ১৯৭০ সনের জাতীয় নির্বাচনে ন্যাশনাল এসেন্মলির সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের তিনি ছিলেন অন্যতম সংগঠক। মুজিব বাহিনীর অঞ্চল ভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত চার প্রধানের তিনি ছিলেন একজন। ১৯৭২ সালের ১৪ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একজন প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদায় তাকে তার রাজনৈতিক সচিব নিযুক্ত করেন। ১৯৭৩ সালে তিনি জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৬, ১৯৯১ এবং ১৯৯৬ সালে পর পর তিনবার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি প্রাক্তন শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক। তিনি সর্বশেষ ২০০৮ সালে ভোলা ২ আসন থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি বর্তমানে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ও শিল্প মন্ত্রনালয়ের সংসদ বিষয়ক কমিটির সভাপতি।এছাড়া তিনি ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে অন্তর্বর্তীকালীন মন্ত্রীপরিষদের  শিল্প ও গৃহায়ন গণপূর্ত মন্ত্রী হিসেবে কাজ করছেন। বর্তমানে তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে রয়েছেন। তোফায়েল আহমেদ তিনি এ পর্যন্ত ভোলায় অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধমীয় প্রতিষ্ঠান, রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্টসহ অনেক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করেছেন।

 

 

জনাব আব্দুল্লাহ  আল ইসলাম জ্যাকব (মাননীয় উপমন্ত্রী,বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় )

 

 

 

 

পিতাঃ মৃতঃ এম এম নজরুল ইসলাম

 

মাতাঃ বেগম রহিমা ইসলাম

 

আসন নংঃ ১১৮, ভোলা-৪

 

রাজনৈতিক দলঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ

 

ঠিকানা                ঃ অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম স্যারের বাসা, দক্ষিণ ফ্যাশন, ২ নং ওয়ার্ড, চরফ্যাশন পৌরসভা, চরফ্যাশন , ভোলা।

 

রাজনীতিতে উল্লেখযোগ্য বিষয়ঃ জনাব আব্দুল্লাহ  আল ইসলাম জ্যাকব,নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাননীয় সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয় এবং বর্তমানে ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন নংঃ ১১৮, ভোলা-৪ থেকে সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের  উপমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন।

 

                                                        জনাব মোঃ নুরুন্নবী চৌধুরী  ( মাননীয় সংসদ সদস্য)

                                                                   

 

 

                                                                    পিতাঃ মোঃ নুরুল ইসলাম চৌধুরী

                                                                    মাতাঃ হোসনে আরা বেগম

                                                                    আসন নংঃ ১১৭, ভোলা-৩

 

                                                     রাজনৈতিক দলঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ

 ঠিকানাঃ                                         কলেজ পাড়া, মেহেরগঞ্জ, লালমোহন, ভোলা।

রাজনীতিতে উল্লেখযোগ্য বিষয়ঃ           নবম জাতীয় সংসদের উপ- নির্বাচনে মাননীয় সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয় । এবং বর্তমান দশম জাতীয়                                                            সংসদ নির্বাচনে মাননীয় সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হন।    
 

 

                                                             জনাব আলী আজম ( মাননীয় সংসদ সদস্য)

 

                                                                        

 

                                                       পিতাঃ মৃতঃ আলী আশরাফ

                                                       মাতাঃ মৃতঃ  রাহিমা

                                           

                                                     আসন নংঃ ১১৬, ভোলা-২

 

                                                     রাজনৈতিক দলঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ

 ঠিকানাঃ                                         গ্রামঃ চর বড় লামছিধলি, ডাকঘরঃ দৌলতখান , পৌরসভাঃ  দৌলতখান, জেলাঃ ভোলা।   

রাজনীতিতে উল্লেখযোগ্য বিষয়ঃ             দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাননীয় সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হন।     

 

                                                                                            মেজর(অব:) হাফিজ উদ্দিন (বীর বিক্রম)

পিতা:

ডা: আজহার উদ্দিন আহমেদ

 

মাতা:

 

ঠিকানা:

লালমোহন, ভোলা

জন্ম:

২৯/১০/১৯৪৪

 

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদানের জন্য বীর বিক্রম খ্যাতি প্রাপ্ত হন। ভোলা-৩ আসন থেকে ছয় বার এম.পি. নিবাচিত হয়েছিলেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ সরকারের সাবেক পানিসম্পদ ও বাণিজ্য  মন্ত্রী ছিলেন। তার জাতীয় দলের কৃতি খেলোয়ার হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে।